ড্রাইভিংয়ের সময় মোবাইল ফোন ব্যবহারের কঠিন নিয়ম চালু হচ্ছে ১ ডিসেম্বর থেকে

ড্রাইভিংয়ের সময় মোবাইল ফোন ব্যবহারের কঠিন নিয়ম চালু হচ্ছে ১ ডিসেম্বর থেকে

0

আগামী ১ ডিসেম্বর ,শনিবার ২০১৯ থেকে নিউ সাউথ ওয়েলসের রাস্তায় অত্যাধুনিক প্রযুক্তির ৪৫ টি ক্যামেরা যুক্ত হবে। ২০১৮ সালে, নিউ সাউথ ওয়েলস রাজ্য সরকার ঘোষণা করেছিল যে তারা দুই বছরের মধ্যে রাস্তায় হতাহতের সংখ্যা ৩০ শতাংশ পর্যন্ত কমিয়ে আনবে। ড্রাইভিং করার সময় মোবাইল ফোন ব্যবহার বর্তমানে দুর্ঘটনার অন্যতম একটি কারণ বলে বিবেচিত।তাই ড্রাইভিং করার সময় নিয়মভেঙ্গে ড্রাইভাররা তাদের মোবাইল ফোন ব্যবহার করছে কিনা তা শনাক্ত করতে এই অত্যাধুনিক প্রযুক্তির ক্যামেরাগুলি যুক্ত হচ্ছে রাস্তায় ।

নিউ সাউথ ওয়েলস ট্রান্সপোর্টের তথ্য অনুযায়ী , প্রথম পর্যায়ে নিউ সাউথ ওয়েলসের বিভিন্ন রাস্তায় স্থির ও পরিবহনযোগ্য (ট্রেলার-মাউন্টযুক্ত) ক্যামেরা থেকে ড্রাইভারদের মোবাইল ফোনের অবৈধ ব্যবহার লক্ষ্য করে ছবি তুলবে । নির্দিষ্ট ক্যামেরাগুলির কোন কোন জায়গায় বসানো হয়েছে তাদের অবস্থান প্রকাশ করা হয়নি।

নিউ সাউথ ওয়েলস সরকার নিশ্চিত করেছে যে, বছরের শুরুতে কয়েক মিলিয়ন গাড়ি স্ক্যান করে মোবাইল ফোন সনাক্তকরণ ক্যামেরাগুলির পরীক্ষা সাফল্যের সাথে শেষ করেছে। গত জানুয়ারী থেকে জুন ২০১৯ এর মধ্যে এই পরীক্ষা চলছিল এবং এনএসডাব্লু ট্রান্সপোর্টের হিসাবে, ৮.৫ মিলিয়ন গাড়ি স্ক্যান করা হয়েছিল।এই পরীক্ষায় দেখা গেছে , ১০ লক্ষেরও বেশি চালক তাদের মোবাইল ফোনটি কল করতে, টেক্সট মেসেজ করতে এবং এমনকি সামাজিক মিডিয়া অ্যাকাউন্টগুলি চেক এবং আপডেট করার জন্য অবৈধভাবে ব্যবহার করেছিলেন। যদি এই চালকদের জরিমানা করা হত, তবে এই রাজ্যের আয় প্রায় ৩৫ মিলিয়ন ডলার হত।

১ ডিসেম্বর শনিবার থেকে এই ক্যামেরাগুলি কোন সতর্ক বার্তা / সাইন ছাড়াই কাজ শুরু করবে। স্পিড ক্যামেরার মত সতর্কতা চিহ্নগুলিও ইনস্টল করা উচিত কিনা তা নিয়ে বিতর্ক দেখা দিয়েছিল । কিন্তু এই বিষয়ে এনএসডব্লিউ সড়ক ও পরিবহন মন্ত্রী অ্যান্ড্রু কনস্ট্যান্স নাকচ করে দিয়ে বলেন ,” মোবাইল ফোন ব্যবহার করলে আমি যে কোনও সময় ধরা পড়তে পারি, এইটা সব সময় ভাবতে হবে। ক্যামেরা গুলো ব্যবহারের সময় কোন সতর্কতার লক্ষণ/ সাইন দেয়া হবে না। আমি মোবাইল ব্যবহারের আচরণটি পরিবর্তন করতে চাই এবং আমি তা অবিলম্বে পরিবর্তিত করতে চাই। এটি আয় থেকে নয় – এটি জীবন বাঁচানোর বিষয়।”

ক্যামেরা কীভাবে কাজ করবে?

মোবাইল ফোন সনাক্তকরণ ক্যামেরাগুলি গাড়ির চালক মোবাইল ফোন পরিচালনা করছে কিনা তা নির্ধারণ করতে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা ব্যবহার করবে । এই হাই-ডেফিনিশন ক্যামেরাগুলি দিনে/রাতে ২৪ ঘন্টা কাজ করবে এবং যে কোনও ধরণের আবহাওয়াতে ছবি ধরতে সক্ষম হবে । শুধু তাই না, কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা সম্পন্ন এই ক্যামেরা সামনের যাত্রী এবং ড্রাইভারদের ফটো একসাথে তোলার পরিবর্তে শুধু যিনি আইন ভঙ্গ করছেন (ড্রাইভার) কেবল তারই ছবি তুলতে সক্ষম ।

রোল আউটের প্রথম তিন মাস অবৈধভাবে ফোন ব্যবহারকারীদের একটি সতর্কতা পত্র বাসার ঠিকানায় পাঠিয়ে দিবে। তিন মাস সময়সীমা শেষ হওয়ার পর,যে কোনও চালক আপত্তিজনকভাবে ফোন ব্যবহার করে ধরা পড়লে, তার পাঁচটি ডিমেরিট পয়েন্ট এবং ৩৪৪ ডলার জরিমানা করা হবে । স্কুল জোনে ধরা পড়লে এটি বেড়ে যাবে ৪৫৭ ডলার। কিন্তু আগামী ২০ ডিসেম্বর ২০১৯ থেকে ৫ জানুয়ারী ২০২০ ডাবল-ডিমেরিট সময়কালে ১০ ডিমেরিট পয়েন্ট চলে যাবে।

বিস্তারিত নিয়ম জানার জন্য ক্লিক করুন বিস্তারিত নিয়ম

অস্ট্রেলিয়ার অন্যান্য রাজ্যগুলো এই পথ অদূর ভবিষ্যতে অনুসরন করবে বলে ইতিমধ্যে পদক্ষেপ নিয়েছে বলে গণমাধ্যম জানিয়েছে। (তথ্যসূত্রঃ নাইন নিউজ)

Facebook Comments

You may also like

পাঁচ বছর ধরে যুদ্ধাপরাধী কাদের মোল্লাকে শহীদ লিখে আসছে সংগ্রাম!

ফজলুল বারী: যুদ্ধাপরাধের দায়ে ফাঁসিতে মৃতুবরনকারী কাদের মোল্লা ওরফে