পার্থের শ্রীলংকান কমুনিটির এক বাবা তার ছেলে ও মেয়েকে হত্যার পরে নিজেই আত্মহত্যা করেছে।

পার্থের শ্রীলংকান কমুনিটির এক বাবা তার ছেলে ও মেয়েকে হত্যার পরে নিজেই আত্মহত্যা করেছে।

মিঃ ইন্ডিকা গুনাথিলাকা এবং শিশুদের মৃতদেহ আবিষ্কৃত হওয়ার দু'দিন আগে, তিনি ফেসবুকে একটি ছবি শেয়ার করেছিলেন যে তারা সবাই একটি সৈকতে হাত ধরে সূর্যাস্ত দেখছে, ক্যামেরার দিকে তাদের পিঠ
পার্থের শ্রীলংকান কমুনিটির এক বাবা তার ছেলে ও মেয়েকে হত্যার পরে নিজেই আত্মহত্যা করেছে। হৃদয় ভাঙ্গা এই সংবাদে অস্ট্রেলিয়া কেঁপে উঠেছে।
পুলিশের বিবৃতি অনুযায়ী, চল্লিশ বছরের ইন্ডিকা গুনাথিলাকা সহ তার চার বছরের মেয়ে লিলি ও ছয় বছরের ছেলে কোহানের মৃত দেহ পার্থের হান্টিংডেলের এসিংটন স্ট্রিটের তাদের বাসার গ্যারাজে পাওয়া যায় গত শুক্রবার সন্ধ্যায়।
মিঃ ইন্ডিকা গুনাথিলাকা এবং শিশুদের মৃতদেহ আবিষ্কৃত হওয়ার দু’দিন আগে, তিনি ফেসবুকে একটি ছবি শেয়ার করেছিলেন যে তারা সবাই একটি সৈকতে হাত ধরে সূর্যাস্ত দেখছে, ক্যামেরার দিকে তাদের পিঠ। আর ইন্ডিকার এক বন্ধু তাতে কমেন্ট করেছিল ,”“Indika I know why posted this picture to say you were leaving with the kids”
গত শুক্রবার ইন্ডিকা গুনাথিলাকার বাচ্চা দুইটিকে তাদের মায়ের কাছে দেয়ার জন্য একটি জায়গায় দেখা করার কথা ছিল কিন্তু সেখানে ইন্ডিকা যায়নি বলে বাচ্চাদের মা প্রথমে যে ইন্ডিকার প্রতিবেশীদের সাথে যোগাযোগ করে এবং প্রতিবেশীদের তথ্য পেয়েই পুলিশকে ফোন করে বিকেল ৬:৩০মিঃ এর দিকে। পুলিশ দ্রুত ওই বাসায় গিয়ে এক হৃদয়বিদারক দৃশ্য দেখতে পায় এবং এমনভাবে তিনটি নিথর দেহ পরে থাকা দেখে পুলিশের ধারণা , বিষয়টি তদন্ত করেই পুরাটা জানানো হবে তবে প্রাথমিক ধারণা অনুযায়ী দুইটা হত্যা এবং একটি আত্মহত্যা বলেই মনে হয়।

মিঃ ইন্ডিকা গুনাথিলাকা এবং শিশুদের মৃতদেহ আবিষ্কৃত হওয়ার দু’দিন আগে, তিনি ফেসবুকে একটি ছবি শেয়ার করেছিলেন যে তারা সবাই একটি সৈকতে হাত ধরে সূর্যাস্ত দেখছে, ক্যামেরার দিকে তাদের পিঠ
এসিট্যান্ট পুলিশ কমিশনার এডামস বলেন ,”৩৫ বছর ধরে পুলিশের কাজ করে এমন হৃদয় ভাঙ্গা মর্মান্তিক দৃশ্য কোনোদিন দেখিনি , যদিও পুলিশের চাকুরীতে এই ধরণের দৃশ্য দেখার জন্য আমরা ট্রেনিংপ্রাপ্ত। “
ক্রিস্টমাসের ঠিক আগেই ফেসবুকে ১৮ মিনিটের একটি ভিডিও পোস্ট করেছিলেন ইন্ডিকা যেখানে তিনি বলেছিলেন, “আমি মানসিকভাবে খুবই খারাপ আছি বলে সাইকোলজিস্ট দেখাচ্ছি এবং প্রেসক্রিপশন অনুযায়ী ঔষুধ খাচ্ছি। “
আরো বলেছে ,“ আমাকে বলা হয়েছে আমি মানুষের দৃষ্টি আকর্ষণের জন্য ফেসবুকে পোস্ট দেই, কথাটা সত্যি কিন্তু আমি এই ভিডিওর কতবার দেখা হয়েছে কিংবা লাইক অথবা কমেন্টস কিছুই দেখবো না। “
“আমি আত্মহত্যার চেস্টা করেছে এমন কয়েকজনের সাথে কথা বলেছি, তারা বলেছে আসলে তারা জীবন শেষ করতে চায়নি, তারা শেষ করতে চেয়েছিল অসহনীয় যন্ত্রনা যেটা সহ্য করার ক্ষমতার বাহিরে চলে যাচ্ছিলো । “
“মানসিক অসুস্থ্যতা একটি বড় হত্যার কারণ ..আমি সেটা বেশ ভালো করেই জানি “
“আমরা সবাই ভুল করি। “
ইন্ডিকা আরো বলেন ,”এই ধরণের মানসিক রুগীদের সাহায্য প্রয়োজন , পারলে আপনারা ওদেরকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিন। “
ইন্ডিকা প্রফেশোনালি খুবই ভালো করছিলেন। সে টাউন প্লানার হিসেবে কাজ করেছিলেন পরবর্তীতে ২০১৪ সালে নিজেই একটি ব্যবসা শুরু করেন “IMG Town Planning and Development Solutions” নামে।
ইন্ডিকা একজন সংগীত শিল্পী ছিলেন এবং ফাউন্ডার মেম্বার ছিলেন ওয়েস্টার্ন অস্ত্র রয়েল কলজে অফ ওল্ড বয়েজ এসোসিয়েশন, যেটা শ্রীলংকান অরিজিনদের সোশ্যাল গ্ৰুপ।
এই ঘটনায় ণর দিয়ে উঠে সারা অস্ট্রেলিয়া এবং শ্রীলংকান অস্ট্রেলিয়ান কমিউনিটিতে ব্যাপক শোকের ছায়া নেমে আসে।
আপনার অথবা আপনি জানেন কারো মানসিক অবস্থা বেশ খারাপ যাচ্ছে দয়া করে সাহায্য চান
Lifeline 13 11 14;
Beyondblue 1300 224 636;
Mental Health Emergency Response Line 1300 555 788 (Metro) or Rurallink 1800 552 002;
Suicide Call Back Service 1300 659 467;
The Samaritans Crisis Line 08 9381 5555.
সূত্রঃ news.com.au

You may also like

ডক্টর মুহাম্মদ ইউনুস মিথ্যা বলছেন

ফজলুল বারী:পদ্মা সেতুর উদ্বোধন পর্ব থেকে ডক্টর মুহাম্মদ