আমেরিকা, ব্রিটেন এবং অস্ট্রেলিয়ার মধ্যে ৯০ বিলিয়ন ডলারের চুক্তি !!

আমেরিকা, ব্রিটেন এবং অস্ট্রেলিয়ার মধ্যে ৯০ বিলিয়ন ডলারের চুক্তি !!

0
অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসন একের পর এক উল্টাপাল্টা সিদ্ধান্ত নিয়েই চলেছেন। বিশ্ববাজারে উনি যেভাবে অস্ট্রেলিয়াকে নিয়ে গিয়েছেন, তাতে মনে হয় অস্ট্রেলিয়া বুঝি পৃথিবীর অন্যতম এক পরাশক্তিতে পরিণত হয়েছে।
এইতো তিনদিন আগে আমেরিকা, ব্রিটেন এবং অস্ট্রেলিয়ার মধ্যে ৯০ বিলিয়ন ডলারের চুক্তি হলো যেখানে অস্ট্রেলিয়াকে নিউক্লিয়ার শক্তি চালিত ১২ টি সাবমেরিন দিবে ব্রিটেন এবং আমেরিকা। যদিও আমেরিকার প্রেসিডেন্ট অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রীর নামটা পর্যন্ত বলতে পারেননি,. যেটা হতাশাজনক।
চুক্তির নেতিবাচক প্রভাবগুলো হলো :
১. অস্ট্রেলিয়ার মিত্র শক্তি, ন্যাটোর অন্যতম সদস্য ফ্রান্সের সাথে উক্ত চুক্তিটি ২০১৬ সালেই করা ছিল অস্ট্রেলিয়ার। অস্ট্রেলিয়ার এতো টাকা খরচ নিয়ে তোপের মুখেও পড়েছিল। ক্রমাগত দেরী করতে করতে হঠাৎ করেই আমেরিকা আর ব্রিটেনের সাথে চুক্তি করে ফেলাতে ফ্রান্স খুবই মনক্ষুন্ন হয়েছে। শীঘ্রই অস্ট্রেলিয়া, ব্রিটেন এবং আমেরিকা থেকে তাঁদের হাই কমিশনারদের দেশে ফেরত আনার সিদ্ধান্ত নিতে যাচ্ছে। এইটা কি অস্ট্রেলিয়ার জন্য ভালো হবে?
২. চীন এদিকে এমনিতেই ক্ষিপ্ত ছিলো করোনা ভাইরাসের উৎস নিয়ে তদন্তের জোড় দাবী যখন একমাত্র অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসনের একারই সিদ্ধান্ত ছিলো। এর পরে একে একে সব বাণিজ্য বন্ধ হবার পরে চীনের সাথে, বিলিয়ন বিলিয়ন ডলার ক্ষতির মুখে এখন অস্ট্রেলিয়া শুধু মাত্র আমাদের বাঁচাল প্রধানমন্ত্রীর লাফালাফির জন্য। এখন চীন সামরিক শক্তি নিয়ে প্রস্তুতি নিচ্ছে অস্ট্রেলিয়াকে আক্রমণ করার। এইটা সত্যি, অস্ট্রেলিয়াকে চীনের আক্রমণ করাটা অতটা সহজ না যেমন, আবার আক্রমণ করলে পুরো অস্ট্রেলিয়ার সামরিক শক্তি গণনায় বলতে গেলে চীনের কাছে কিছুই না।

Facebook Comments

You may also like

সিডনিতে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির বাংলাদেশ শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত

সিডনিতে ৭ নভেম্বর রবিবার সাংবাদিকদের সংগঠন অস্ট্রেলিয়া বাংলাদেশ