কাজী সুলতানা শিমি’র প্রবন্ধ সংকলন “শুরু হোক পথচলা”

কাজী সুলতানা শিমি’র প্রবন্ধ সংকলন “শুরু হোক পথচলা”

96
0

অস্ট্রেলিয়া প্রবাসী লেখক ও সাংবাদিক কাজী সুলতানা শিমি’র “শুরু হোক পথচলা” নামে একটি প্রবন্ধ সংকলন বেরিয়েছে এবারের বাংলা একাডেমী’র একুশে বইমেলায়। বইটি প্রকাশ করেছে সব্যসাচী প্রকাশনী। বিভিন্ন জাতীয় পত্রিকায় প্রকাশিত প্রবন্ধ সমূহের সম্মিলিত প্রকাশনার ৮০ পৃষ্ঠার এই বইটির মূল্য ২২১ টাকা এবং ডলারে ১৫ ডলার। পাওয়া যাচ্ছে সব্যসাচী প্রকাশনীর ৫১৮ নাম্বার স্টলে। প্রবন্ধ সংকলনটি আগামী ১৭ই ফেব্রুয়ারি সিডনি’র এশফিল্ডে একুশে একাডেমীর বই মেলায় ও পাওয়া যাবে বলে আশা করা যাচ্ছে।

কাজী সুলতানা শিমি, বাংলাদেশে দর্শনের শিক্ষিকা হিসেবে পেশাগত জীবন শুরু করলেও বর্তমানে অস্ট্রেলিয়ায় কলামিস্ট, প্রাবন্ধিক ও সাংবাদিক। বাংলাদেশের জাতীয় পত্রিকা দৈনিক ভোরের কাগজ’ দৈনিক ইত্তেফাক ও মানব জমিনে’ নিয়মিত লিখছেন।পাশাপাশি বাংলাদেশের জাতীয় দৈনিক ভোরের কাগজে’ ও newsg24.com এর অস্ট্রেলিয়ার প্রতিনিধি হিসেবে নিয়মিত লেখালেখি, নিউজ ও রিপোর্ট করছেন। এছাড়াও বাংলাদেশের জাতীয় পত্রিকা মানব-জমীন ও জনকণ্ঠে তার লেখা নিয়মিত প্রকাশিত হচ্ছে।

অস্ট্রেলিয়া প্রবাসী লেখক ও সাংবাদিক কাজী সুলতানা শিমি

উল্লেখ্যঃ শিক্ষাজীবনে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের দর্শন বিভাগ থেকে অনার্স ও মাস্টার্সে প্লেস-নিয়ে’ ও স্কলার-শীপ পেয়ে অত্যন্ত উজ্জ্বল ফলাফল সহকারে শিক্ষা জীবন সমাপ্ত করেন। আর তাই তার অন্যতম আগ্রহের বিষয় দর্শন এবং নীতিবিদ্যা। লেখালেখির শুরু কলেজ ম্যাগাজিন থেকে হলেও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াকালীন সময় থেকে তৎকালীন বাংলা বাজার’ পত্রিকায় লিখতে শুরু করেন ভালোলাগা থেকে।  পাশাপাশি ডাকসু নাটক বিভাগে নাটক বিষয়ে একজন নিয়মিত সদস্য ছিলেন। সেই সময়ে যুব তরঙ্গ’ রেডিও অনুষ্ঠান করার সুবাদে বাংলাদেশ রেডিওতে নাটক ও কণ্ঠ দিয়েছেন বহুবার। এছাড়াও ছিলেন এশিয়ান থিয়েটার” নাট্যদলের একনিষ্ঠ সদস্য এবং একজন শৌখিন আবৃত্তিশিল্পী।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে দর্শন বিষয়ে অনার্স ও মাস্টার্স শেষ করার পর দর্শন ও নৈতিকতা’’ বিষয়ে এম ফিল ও গবেষণা করাকালীন সময়ে ২০০০ সালে বাংলাদেশ থেকে নিউজিল্যান্ডে স্থায়ী নাগরিকত্ব নিয়ে সেখানে অভিবাসিত হন। এরপর ২০০৪ সাল থেকে তিনি অস্ট্রেলিয়া’র সিডনিতে বসবাস করছেন। নিউজিল্যান্ড থাকাকালীন সময়ে অকল্যান্ড ইউনিভার্সিটিতে কম্পিউটার সায়েন্স-এ পড়ালেখা করেন। পাশাপাশি বিজনেস অ্যাডমিন ও ফাইনান্স বিষয়ে পড়াশুনা শেষে অকল্যান্ড ডিস্ট্রিক কোর্ট সহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে চাকরী করেন। অস্ট্রেলিয়ায় তিনি কমিউনিটি সার্ভিস-এর উপর ডিপ্লোমা করার পর বর্তমানে নৈতিকতা বিষয়ে গবেষণা ও মাল্টি কালচারাল সাপোর্ট নিয়ে কাজ করছেন। প্রায় দু’দশক ধরে তিনি প্রবাসে বসবাস করলেও বাংলাদেশকে বুকে ধারণ করেন প্রতিক্ষণ। বর্তমানে এক মেয়ে, এক ছেলে, স্বামী ও পরিজন নিয়ে সিডনীর গিলফোর্ডে থাকেন। অস্ট্রেলিয়ায় তিনি আলোকিত নারী’-হিসেবে সম্মাননা পেয়েছেন বাংলাদেশের জনপ্রিয় টিভি চ্যানেল আর টিভি থেকে। 

Facebook Comments

You may also like

এসফিল্ড পার্কে কিশোরসংঘের সাংষ্কৃতিক পরিবেশনা (ভিডিও)

গত ১৭ ফেব্রুয়ারি রোববার এসফিল্ড পার্কে একুশে একাডেমির