শুধিতে হইবে ঋণ’-এই দায়বদ্ধতায় সিডনীতে বাংলাদেশের বন্যার্তদের জন্য তহবিল সংগ্রহ

শুধিতে হইবে ঋণ’-এই দায়বদ্ধতায় সিডনীতে বাংলাদেশের বন্যার্তদের জন্য তহবিল সংগ্রহ

99
0

 কাজী সুলতানা শিমিঃ সিডনী থেকে প্রকাশিত বাংলা ওয়েব পোর্টাল বাংলা-সিডনি ডটকমের সার্বিক উদ্যোগ ও বাংলাদেশ ডিজেস্টার রিলিফ কমিটি অস্ট্রেলিয়া এর সহযোগিতায় প্রিয় জনপদ প্রিয় জন্মভূমি বাংলাদেশের বন্যার্ত মানুষের জন্য তহবিল সংগ্রহে এগিয়ে এসেছে অস্ট্রেলিয়ার সিডনির বাংলাদেশি কয়েকটি সংগঠন। গত ২৭ আগস্ট রোববার সিডনির উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলীয় সাবার্বের গ্লেনউড পার্কে সিডনিবাসী বাঙালিদের আমন্ত্রণ জানিয়েছিলো ঢাকা ইউনিভার্সিটি অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশন, রাজশাহী ইউনিভার্সিটি অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশন, প্রতীতি ও বাংলা-সিডনি ডটকম।

বাংলাদেশের পানি-বন্দী মানুষের পাশে দাঁড়ানোর উদ্দেশ্য নিয়ে তহবিল সংগ্রহের জন্য এই আয়োজন করা হয়।আয়োজনে দুপুরের খাবার খিচুড়ি-মাংসের বিনিময়ে সাধ্য অনুযায়ী অনুদান গ্রহণ করার আহবান জানানো হয়।

তবে এই সাহায্যকে দান নয় বরং ঋণ শোধ বলে মনে করেছেন সিডনি থেকে প্রকাশিত অনলাইন ওয়েব পোর্টালের সম্পাদক আনিসুর রহমান। তিনি বলেন, যে দেশে শৈশব-কৈশোর পার করেছি, যে দেশ আমাদের পরিচয় ও শিক্ষা দিয়েছে, সে দেশের মানুষের এই দুর্দশার দিনে পাশে দাঁড়ানো আমাদের নৈতিক দ্বায়িত্ব। তাই দান নয় বরং ঋণ শোধ করতে আজ বন্যার্তদের পাশে দাঁড়ানো দরকার। সংগৃহীত তহবিল বাংলাদেশের সমাজসেবামূলক সংগঠন ‘পরিবর্তন চাই’-এর কর্মীদের মাধ্যমে ত্রাণ সামগ্রী ক্রয় করে বন্যার্তদের কাছে পৌঁছে দেওয়া হবে। যারা তহবিল সংগ্রহের আয়োজনে উপস্থিত থাকতে পারবেন না তারা ব্যাংক অ্যাকাউন্টের মাধ্যমে তহবিল পৌঁছে দিতে পারবেন বলে বিকল্প ব্যবস্থা রাখা হয়। এই আয়োজনের মাধ্যমে এ পর্যন্ত  মোট ৯০৭৩.৩০ ডলার সংগ্রহ করা হয়েছে।

উলেখ্য, পরিবর্তন চাই”-বাংলাদেশের একটি সমাজ সেবামূলক  সংগঠন। এর পক্ষ থেকে গত ২২ আগষ্ট, ২০১৭ খ্রিষ্টাব্দ তারিখ লালমনিরহাট জেলার বন্যা দূর্গত কালীগঞ্জ উপজেলার শৈলমারী ইউনিয়নের ১,৪,৫,৬,৯ নং ওয়ার্ডের ১৬৫ জনকে ১,৬৫,০০০ টাকা- হাড়িসর ইউনিয়নের ৫.৬.৭ নং ওয়ার্ডের ১১৯ জনকে ১,১৯,০০০ টাকা এবং হাতীবান্ধা উপজেলার গুড্ডিমারী ইউনিয়নের ৬.৭.৮.৯ নং ওয়ার্ডের ২০৯ জনকে ২,৭০,০০০ টাকা প্রদান করা হয়েছে। ‘পরিবর্তন চাই’ এর কর্মীরা এলাকাগুলোতে ঘুরে ঘুরে প্রকৃত ক্ষতিগ্রস্থদের তালিকা তৈরী করেছিল এবং সংগঠনের চেয়ারম্যান ফিদা হকের উপস্থিতিতে এই কার্যক্রম সুসম্পন্ন হয়। এলাকাগুলো থেকে বন্যার পানি নেমে যেতে শুরু করেছে, কোথাও কোথাও নেমেও গেছে। বিভিন্ন পরিবারের প্রয়োজন বিভিন্ন। কারো প্রয়োজন খাদ্য, কারো ঔষধ, কারো শস্য বীজ, শুকনা খাবার, পানি বিশুদ্ধকরণ ট্যাবলেট প্রভৃতি। সার্বিক বিবেচনায় নগদ অর্থ প্রদান করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। ঈদের পরপরই রাজশাহী জেলার বাগমারা উপজেলায় ও নওগাঁ জেলার মান্দা উপজেলায় ত্রাণ সহায়তা প্রদান করা হবে। সেই আয়োজনে সিভিল সার্জন রাজশাহী এর মেডিকেল টিম ‘পরিবর্তন চাই’ এর সাথে কাজ করবে।সংগৃহীত অর্থ ইতিমধ্যে পরিবর্তন চাই”-সংগঠনকে পাঠিয়ে দেয়া হয়েছে।

Facebook Comments

You may also like

সিডনিতে এসো মেতে উঠি বিজয়ের আনন্দে – ১৬ই ডিসেম্বর ২০১৭

‘এসো মেতে উঠি বিজয়ের আনন্দে’ স্লোগান নিয়ে –