সিডনিতে ফাগুন উৎসব পালন

সিডনিতে ফাগুন উৎসব পালন

203
0

গত ১০ মার্চ রবিবার সিডনির মিন্টুস্থ রনমোর কমিউনিটি সেন্টারে উৎসবমুখর পরিবেশে উৎযাপিত হল বাংলাদেশের ঐতিহ্যবাহী ফাগুন উৎসব। বসন্ত বরণ অনুষ্ঠান বাংলাদেশের সীমানা পেরিয়ে পৃথিবীর বিভিন্ন প্রান্তে ছড়িয়ে পড়ছে। তারই একটি বহিঃপ্রকাশ সিডনির ‘ফাগুন হাওয়া’ উৎসব। আর এই উৎসবকে সাজিয়ে তুলতে সাহায্য করেছে সিডনির বিভিন্ন প্রান্ত থেকে বাঙালিদের বাসন্তী রঙের দেশীয় পোশাক , রঙিন ফানুস , পোষ্টার এবং নানা রঙের বাহারী ফেস্টুনের উপস্থিতি। সিডনিতে বড় আকারে বসন্ত উৎসব উৎযাপন করার উদ্যোগ এই বছরই প্রথম।

চমৎকার আবহাওয়া এবং সাপ্তাহিক ছুটির দিন থাকতে দুপুর ১২টা বাজার আগে থেকেই লোকসমাগম বাড়তে থাকে। বসন্ত উৎসবে ছিল দেশীয় কাপড়ের দোকান, রকমারি পিঠা ও দেশীয় মুখরোচক খাবারের আয়োজন ছিল ।

আয়োজক কমিটি ‘দি ফ্রেন্ডস’ ঠিক দুপুর ১:৩০ মিনিটে ‘ফাগুন হাওয়া’ অনুষ্ঠানের আনুষ্ঠানিকতা শুরু করেন । প্রথমেই থাকে সমবেত কণ্ঠে জাতীয় সংগীত। এরপরই আনিলা পারভিনের আবৃত্তি শেষে মধ্যাহ্নভোজ ও নামাজের বিরতি দেয়া হয়।বিরতির পর তাম্মি পারভেজ তার কবিতা আবৃত্তি দিয়ে শুরু করেন অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় পর্ব। ধারাবাহিকভাবে সংগীত পরিবেশন করেন আয়শা কলি ও সাথে বাদ্যযন্ত্রে সহায়তা করেন নামিদ ফারহান।

একদল কিশোরকিশোরীদের পরিবেশনা নিয়ে আসে সিডনি বাঙালি কমিউনিটির অংগ সংগঠন কিশোর সংঘ। বিদেশে থেকেও কেন মাতৃভাষা শিখতে হবে সেটার উপর গুরুত্ব দেন এবং একটি আবৃত্তি করেন সেলিমা বেগম। অস্ট্রেলিয়ায় কিশোরসংঘের এই দলটিতে ছিল ঈশান, জাফরী, সাফিনা, আনুভা , মুন, ফাহমিদা, রিডা, মহিমা, রিয়া, আদিবা, সারিকা এবং সাফাইয়া।একক সংগীত পরিবেশন করে সাফিনা, রিডা, আনুভা, ফাহমিদা , মুন এবং বাকিরা দলগতভাবে সংগীত পরিবেশন করে। আবৃত্তি করে জাফরী এবং একক ভাবে নাচে অংশ নেয় সারিকা ও সাফাইয়া। হলুদ শাড়ী ও পাঞ্জাবি দিয়ে সুসজ্জিত দলটির পরিবেশনা ছিল মনমুগ্ধকর। এই দলে গীটারে সাহায্য করেন সোহেল খান, ঈশান তারিক ,তবলায় সাকিনা আক্তার, হারমোনিয়ামে সীমা আহমেদ, মন্দিরায় লোকমান হাকিম এবং খঞ্জনী বাজান নিলুফার ইয়াসমিন।কিশোর সংঘের অনুষ্ঠান পরিকল্পনায় ছিলেন পূরবী পারমিতা বোস।

এরপরই শুরু করেন সিডনির নামকরা গানের শিল্পী যুগল আতিক হেলাল -আরফিনা মিতার ফাগুনের গানের পরিবেশনা। সুরের ছন্দে উপস্থিত সবাইকে মাতিয়ে রাখেন এই জুটি।পরবর্তীতে সংগীত পরিবেশন করেন রুমানা ফেরদৌস এবং মোক্তার।
দেশী পোশাকের বাহারী পরিবেশনা নিয়ে তানহার পরিচলনায় ‘দি লুক’ ফ্যাশন শো ছিল খুবই আকর্ষণীয়। সবশেষে ছিল ডিজে সায়েমেরে পরিবেশনা।
অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন ম্যাককোয়ারি ফিল্ডসের এম পি আনোলাক চান্টিভং ,ক্যাম্বেলটাউন সিটি কাউন্সিলের মেয়র জর্জ ব্রিটিসিভিক এবং কাউন্সিলর মাসুদ চৌধুরী। এছাড়াও উক্ত অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সিডনির বিভিন্ন রাজনৈতিক, সাংগঠনিক এবং বিভিন্ন পত্রিকার সম্পাদক সহ অনেক গন্যমান্য ব্যাক্তিবর্গ।
সবশেষে আয়োজক কমিটির পক্ষে আবিদা আসওয়াদ, নাছরিন পলি, তিসা তানিয়া ও পপি কবির সকলকে ধন্যবাদ দিয়ে অনুষ্ঠানটির পরিসমাপ্তি টানেন সন্ধ্যে ৭:৩০ মিনিটে।

Facebook Comments

You may also like

৭ই এপ্রিল সিডনির ইঙ্গেলবার্নে বৈশাখী উৎসবে গান গাইছেন প্রখ্যাত লোকসংগীত শিল্পী দিলরুবা খান!

বৈশাখী উৎসব বাঙালিদের প্রাণের উৎসব। সুদূর বাংলাদেশ থেকে